খুনের ষড়যন্ত, প্রতারণা! রামদেবের বিরুদ্ধে FIR, মামলা একাধিক ধারায়।

খুনের ষড়যন্ত, প্রতারণা! রামদেবের বিরুদ্ধে FIR, মামলা একাধিক ধারায়।

ওয়েব ডেস্কঃ কদিন ধরেই খবরের শিরোনামে রয়েছেন যোগ গুরু বাবা রামদেব। যে করোনা ভাইরাস কে সামলাতে হিমসিম খাচ্ছেন বিশ্বের তাবড় গবেষক বা চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা সেই করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কার করে ফেলেছে রামদেবের সংস্থা পতঞ্জলি। শুধু তাই নয়, রামদেবের দাবি ওষুধ নাকি ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্তদের ওপর পরীক্ষিত এবং প্রশ্নাতীত ভাবে সফল।(FIR against baba Ramdev)

যাই হোক চলছিল ভালই কিন্তু বাদ সাধল বিজ্ঞাপন দিতে গিয়েই! ৫৪৫ টাকায় ওষুধ পাওয়া যাবে ভারতের যে কোন প্রান্তে বিজ্ঞাপন শুরু করেছিলেন রামদেব। প্রথম দিকে চুপচাপ ছিল কেন্দ্রের আয়ুষ মন্ত্রক তথা কেন্দ্রের সরকার। কিন্তু নেটিজেন দের সমালোচনায় আর চুপ থাকতে পারেনি কেন্দ্রীয় আয়ুষ মন্ত্রক। রামদেবের করোনা ওষুধ সরকারি পরীক্ষাগারে পাশ করার আগে বাজারে ছাড়া যাবেনা এবং তা নিয়ে বিজ্ঞাপনও দেওয়া যাবে না বলে দিয়েছে আয়ুষ মন্ত্রক।

রামদেব নিজে কি জানিয়েছিলেন তাঁর সংস্থার ওষুধ নিয়ে? তাঁর কথায় “করোনিল ও শ্বাসারি নামের ওষুধটি দেশের ২৮০ জন করোনা রোগীর মধ্যে প্রয়োগ করে দেখা হয়েছে। ৫৪৫ টাকা দামের ওই ওষুধ এক সপ্তাহের মধ্যেই সারা দেশে পাওয়া যাবে।” সে ব্যাবসা আপাতত বন্ধ। তবে সংস্থার পক্ষে দাবি করা হয়েছে তাঁরা যা করেছেন তা সরকারি নিয়ম কানুন মেনেই।

অন্যদিকে আজ রামদেব এবং তাঁর সংস্থার বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে। প্রথমটি রাজস্থানে এবং দ্বিতীয়টি চণ্ডিগড়ে। জয়পুরের মামলাকারীর নাম বলরাম জাখরে। আগামী ৩০ জুন মামলাটি উঠবে বিহার হাইকোর্টে। সূত্রের খবর মামলা হয়েছে ৪২০ ধারায়। পাশাপাশি চন্ডিগড়ের National Consumer Welfare Council এর সাধারন সম্পাদক বিক্রমজিত সিং মামলা করেছেন যোগগুরু রামদেবের বিরুদ্ধে। এখানে রামদেব ও তাঁর সংস্থার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৭৫, ২৭৬, ৪৬৮ এবং খুনের চক্রান্ত অর্থাৎ ৩০৭ ধারায় মামলা করা হয়েছে।

সূত্রের খবর কেন্দ্রীয় আয়ুষ মন্ত্রক এখনও রামদেবের করোনা ওষুধের সত্যতা যাচাই করে উঠতে পারেনি। আপাতত নির্দেশ বহাল থাকছে সরকারি পরীক্ষার আগে সমস্ত বিজ্ঞাপন বন্ধ রাখতে হবে পতঞ্জলিকে। সরকারি পরীক্ষা ছাড়া এভাবে ওষুধের বিজ্ঞাপন ড্রাগস ও ম্যাজিক রেমেডিস অ্যাক্ট, ১৯৫৪-এর আওতায় পড়বে বলেও জানিয়েছে আয়ুষ মন্ত্রক। এখন দেখার যোগগুরু রামদেবের ওষুধের সত্যতা কতটুকু। যদি রামদেবের ওষুধ করোনা ভাইরাস প্রতিহত করতে সক্ষম হয় তা হবে বিশ্বের বুকে এক নজির আর তা প্রমান করতে রামদেবের সংস্থা যদি ব্যার্থ হয় তাহলে প্রতারনার দায় নিতে হবে তাঁকে সেক্ষেত্রে কি হয় সেটা সময় বলবে।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *